অভিযোগ পেলেই বুবলীকে খোঁজা হবে: জায়েদ খান

রহস্যময়ী চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী হঠাৎ উধাও হয়ে গেছেন। মানে তিনি কারও সঙ্গে যোগাযোগ করছেন না। কেন নিজেকে আড়াল রেখেছেন তা নিয়ে নানান খবর চাউর রয়েছে।

তবে এতো কিছুর পরেও চুপ রয়েছেন বুবলী। নিন্দুকদের কটু কথা মুখ বুঝে সহ্য করে যাচ্ছেন ‘রংবাজ’ ছবির এই নায়িকা। সেদিন এক সিনিয়র সাংবাদিক অভিমানের সুরেই বললেন, দেখুন তো করোনার এই সময়ে সকল শিল্পী মিলেমিশে একে অপরকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

অথচ এই সময়ের আলোচিত নায়িকা বুবলীর কোনো খোঁজ নেই। তিনিও তো সবার পাশে দাঁড়াতে পারতেন। মাঝে মধ্যে নায়িকা নিজের অস্তিত্ব জানান দেয়ার জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি পোস্ট করেন।

কিন্তু সেসব ছবি এখনকার নাকি অতীতের তোলা তা বলা মুশকিল। বুবলী কোথায় রয়েছেন তা নিয়েও ধোঁয়াশার শেষ নেই। কেউ বলেন বুবলী আমেরিকায় কেউবা বলেন তিনি ঢাকাতেই আছেন।

এদিকে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির একজন সদস্য হলেন চিত্রনায়িকা বুবলী। স্বাভাবিকভাবেই সমিতির কাছে সকল শিল্পীর কে কোথায় আছেন এমন অনেক তথ্য থাকে। অথচ বুবলীর অবস্থান নিয়ে কিছুই জানেন না শিল্পী সমিতির নেতারা।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেন, তিনি (বুবলী) কোথায় আছেন তা আমাদের জানা নেই। তবে ৬ মাস আগে শিল্পী সমিতির যে চাঁদা সেটি পরিশোধ করেছেন।

আর কোনো শিল্পী যদি স্বেচ্ছায় নিজের মতো থাকতে চান। তাহলে তো সমিতির কিছু করার নেই। হয়তো তিনি ভালোই রয়েছেন। কারণ যদি খারাপ কিছু হতো তার পরিবার নিশ্চয় আমাদের জানাতেন। তিনি যেকোনো সমস্যায় পড়লে সমিতি তার পাশে দাঁড়াবে।

শিল্পী সমিতির এই নেতা আরও বলেন, যেহেতু তার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই। যেমন কোনো পরিচালক-প্রযোজক যদি শিডিউল ফাঁসানো বা অন্য যেকোনো অভিযোগ করতেন তাহলে সমিতি সেটি বিবেচনায় নেবে।

ভবিষ্যতে যদি তেমন কিছু ঘটে শিল্পী সমিতি অবশ্যই তাকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করবে। পাশাপাশি তিনি কোনো সমস্যায় পড়লেও সমিতি তার পাশে দাঁড়াবে। কারণ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি একটি পরিবার। আমরা এই পরিবারের প্রতিটি সদস্য একে অপরকে ভালোবাসি। তথ্যসূত্র: আরটিভি অনলাইন