আমার ডান হাত সাহায্য করলে যেন বাঁ হাত না জানে : ফেরদৌস

সারাবিশ্বের সঙ্গে আমরাও ইতোমধ্যে বুঝে গেছি, ম’হা’মা’রির ভয়াব’হতা কতখানি। মানুষ যদি সচেতন না হয়, সাবধান না হয় তবে এই ভয়াবহতার হাত থেকে আমাদের রক্ষা নেই।

তবে একটা জিনিস জেনে খুব ভালো লাগছে, আমাদের দেশে এর প্রকোপ কিছুটা হলেও কম। প্রথমে আমাদের কিছু ভুলভ্রান্তি ছিল। যারা প্রথমদিকে বিদেশ থেকে দেশে এসেছিল, তাদের সবাইকে আমরা হোম কোয়ারেন্টিনের মধ্যে আনতে পারিনি।

কিন্তু পরবর্তীকালে সরকার খুব তাড়াতাড়ি সবকিছু আয়ত্তের মধ্যে আনতে সক্ষম হয়েছে। সমাজের বিত্তবানরা নিম্ন আয়ের মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে। এ ছাড়া অনেক শিল্পী, খেলোয়াড় সাহায্য করতে এগিয়ে আসছে।

সবকিছু মিলিয়ে চমৎকার পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। যদি আমরা এই পরিবেশটা সামনের দিনগুলোতে, বিশেষ করে এপ্রিলের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত ধরে রাখতে পারি তা হলে খুব তাড়াতাড়ি এই বিব্রতকর পরিবেশ থেকে বেরিয়ে আসতে পারব।

সবাইকে আহ্বান করব, আর কয়েকটা দিন যেন কষ্ট করে ঘরের মধ্যে থাকে। আমি নিজেও ঘরে আছি। একটা ব্যাপারে আমি সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই, কাউকে সাহায্য করতে গিয়ে কোনোভাবেই যেন তাকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত না করি।

আমাদের শিল্পীদের মধ্যে অনেকে আছেন যারা আর্থিকভাবে অসচ্ছল, অনেকে আছেন দিন আনে দিন খায়। এখন যেহেতু সব ছবির কাজ বন্ধ, তার মানে তাদের কাজ নেই। তারা এখন অর্থনৈতিক বিপদের মধ্যে আছেন।

এখন আমি যদি তাদের সাহায্য করে ফেসবুকের মাধ্যমে বা নিউজ করে সবাইকে জানাই, তবে সে মানুষটি অবশ্যই সবার কাছে ছোট হয়ে যাবে। তাই এই জিনিসটা সবার মাথায় রাখা উচিত।

আমি কাউকে সাহায্য করব সেটা শুধু প্রচার করার জন্য, সেই রীতিতে আমি বিশ্বাসী নই। এটা কিন্তু কোনোভাবেই ঠিক নয়। আমি ব্যক্তিগতভাবে একটা রীতিতে বিশ্বাস করি যে, আমার ডান হাত সাহায্য করলে যেন বাম হাত না জানে।