দুধ দিয়ে তৈরি এই প্যাকটি মাত্র ১ বার ব্যবহার করলেই কালো ত্বক হয়ে যাবে একদম চকচকে সাদা। রইল ভিডিও সহ বিস্তারিত প্রতিবেদন।

আমরা প্রায় সব সময় ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকি। ত্বক আমাদের বাহ্যিক সৌন্দর্য প্রকাশ করে থাকে। আর এই বাহ্যিক সৌন্দর্য নষ্ট করতে অনেক সময় দেখা যায় বিভিন্ন ধরনের সমস্যা। এ সমস্যাগুলো আমরা দূর করার জন্য বিভিন্ন রকম ট্রিটমেন্ট নিয়ে থাকি। অনেক সময় ট্রিটমেন্টগুলো কার্যকর হলোও বেশিরভাগ সময় এই ট্রিটমেন্ট গুলো ব্যবহার করে কোন প্রকার ফলাফল পাওয়া যায় না। ত্বকের সমস্যা গুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে ত্বকের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের দাগ। জীবনে চলার পথে আমাদের ত্বকের মধ্যে অনেক ধরনের সমস্যা হয়ে থাকে।

এই প্যাক শরীরের যেকোনো স্থানে লাগান তাহলে এর থেকে আপনি দারুন উপকার পাবেন। কারণ এই উপায়ে আপনার ত্বককে ফর্সা করবে পাশাপাশি আলগা ত্বকের টানটান ভাব আসবে। যার ফলে আপনার চেহারা আরও উজ্জ্বল হবে এবং আপনাকে আরো কম বয়সী দেখাবে। আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে অথবা বেশি সময় রুদে থাকার কারণে ত্বক কালো হওয়া শুরু হয়। বন্ধুরা এটি আপনার সমস্ত শরীরে উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে নিয়ে আসবে আপনি এটা যেখানেই প্রয়োগ করবেন না কেন অবাক করার মতো ফল দেখতে পাবেন।

আসুন বন্ধুরা দেখে নেই এটা কিভাবে তৈরি করতে হয় এই জিনিসটি। বানানোর জন্য আপনার প্রথম দরকার হবে চালের আটা। ত্বকের নতুন কোষ তৈরি করার জন্য এবং ত্বকের টানটান ভাব ফিরিয়ে নিয়ে আসার জন্য চালের আটা খুবই উপকারী। যার ফলে আপনার ত্বকের টানটান ভাব ফিরে আসবে এবং তা কখনো শুষ্ক হয়ে যাবে না। এই যে চালের আটা বন্ধুরা এটা সব বাসাবাড়িতে খুব সহজে পাওয়া যায়। যদি আপনার বাসায় না থাকে তাহলে আপনি এটা যে কোন মুদির দোকান থেকে কিনতে পারবেন। এখানে আপনাকে কিছুটা চালের আটা নিতে হবে এবং এর পাশাপাশি আপনাদেরকে একটি গ্লাসে দুধ নিতে হবে । বন্ধুরা আপনাদেরকে কাঁচা দুধ নিতে হবে এবং আনুমানিক আধাগ্লাস পরিমান দিতে হবে ।

তো আপনি আধা গ্লাস কাঁচা দুধ নিন এবং 5 থেকে 7 চামচ পরিমাণ চালের আটা নিন। আপনি দেড় চামচ পরিমাণ চালের আটা এই দুধের ভেতর ঢেলে অল্প আঁচে এটাকে গরম করার সময় এটাকে চামচ দিয়ে নাড়তে থাকবেন। দুধ গরম হওয়ার সাথে সাথে এটি একটি ঘন পেস্ট আকারে তৈরি হতে থাকবে। তিন থেকে চার মিনিট অল্প আঁচে জ্বাল দেয়ার পর কিছুটা পেস্টের হয়ে যাবে এবং এই সময় আপনি চুলা বন্ধ করে দেবেন এবং এটাকে ঠান্ডা হতে দেবেন।

এর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আপনার হবে না এবং এটা দুই থেকে তিনবার ব্যবহারের পর পর আপনি আপনার চেহারার উজ্জলতা লক্ষ করতে পারবেন। সর্বশেষ সে জিনিসটা আপনার এখানে মেশাতে হবে সেটা হল লেবু। লেবুতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ভিটামিন সি ত্বককে স্কিন ড্যামেজ এবং প্রিম্যাচিউর থেকে বাঁচাবে পাশাপাশি আপনার ত্বকের পিএইচ লেভেল করবে যার ফলে আপনার ত্বকে উজ্জ্বলতা আসবে। লেবুর রস দিয়ে এটাকে খুব ভালো ভাবে পেস্ট এর সাথে মিশাবেন। যাতে পুরোপুরি ক্রীমের মত ফেনা হয়ে যায়। বন্ধুরা যখন এটাকে নাড়াতে শুরু করবেন ধীরে ধীরে এটা ক্রিমের মতো হতে থাকবে। আপনাকে আনুমানিক এক থেকে দুই মিনিটের মত এই নাড়াচাড়া করতে হবে এবং এখন এটা আপনি আপনার শরীরের যেকোনো স্থানে প্রয়োগ করলেই খুব ভালো ফল পাবেন।

আসুন জেনে নেই এটার প্রয়োগ কিভাবে করতে হবে। এই পেস্ট আপনার পুরো শরিরের প্রয়োগ করতে পারেন। এটা আপনার ত্বকে লাগাতে পারেন যেখানে বিভিন্ন ধরনের দাগ রয়েছে। অথবা এটি আপনার পুরো শরীরেও লাগাতে পারেন যেখানে আপনার ত্বক কালচে হয়ে গিয়েছে। এটা ব্যবহারের জন্য প্রথমে আপনি অনেকটা এটিকে আপনার আঙ্গুলের উপর নিন এবং শরীরের যে অংশে প্রয়োগ করা দরকার সেখানে প্রয়োগ করুন। আপনি আপনার হাতে পায়ে বা শরীরের যেকোনো স্থানে প্রয়োগ করতে পারেন ।