নিজে’র স্বা’মীকে প’রীক্ষা করার জন্য খাটের নিচে লুকিয়ে পড়ল স্ত্রী অ’তঃপর

দূ’রে সরে যাওয়ার চে’ষ্টা করছো। তোমা’র আর ক’ষ্ট করা লাগবেনা। আমি ই তোমা’র থেকে দূ’রে সরে যাচ্ছি। ভালো থেকো তুমি। একদিন এক স্ত্রী তার স্বা’মীকে প’রীক্ষা করার জন্য সি’দ্ধান্ত নিলো।

স্বা’মীর ঘরে ঢোকার শব্দ পেয়ে স্ত্রী খাটের নিচে লুকিয়ে পরল।পা শেই একটা টেবিলে একটা চিরকুট দে’খতে পেয়ে ভ’দ্রলোকটি পড়তে শুরু করলেন।

স্ত্রী: তুমি এখন আর আমা’র কেয়ার নাওনা ভালোবাসোনা সময় দাওনা মনে হচ্ছে তোমা’র জীবনে অন্য কোনো মে’য়ের আগমন ঘ’টেছে ।চিড়কুট টি পড়ার প’ড়ে স্বা’মী পকেট থেকে ফোন বের করে কানে দিয়েই বলতে

শুরু করল জানু আপদটা বিদা’য় হয়েছে এখন রিলাক্সে থাকতে পারব। আমি এখন ই আসছি তোমা’র সাথে দেখা ক’রতে।এসব বলে ফোনটা কে’টে দিয়ে ড্রেস চে’ইঞ্জ করে রুম থেকে তাড়াতাড়ি বেরিয়ে পরল। এসব শু’নতে শু’নতে স্ত্রী মুখ চে’পে কা’ন্না ক’রতে লাগলেন।

স্বা’মী চলে যাওয়ার পরে বিছু’ক্ষণ পরে খাটের নিচ থেকে বেরিয়ে এলেন। খাটের উপর একটি চিড়কুট পেলে লেখাটা প’ড়ে অ’বাক হয়ে গে’লেন। তাতে লেখা ছিলো পা’গলী বউ একটা।খাটের নিচে তোমা’র পা গু’লো

দেখা যা’চ্ছিল্লো আমি তো তোমা’র জন্য ই কা’জক’র্মে যাই তোমা’র সু’খের জন্যই তো এত ক’ষ্ট করি। তবু তুমি ভু’ল বুঝো। আমি তোমায় অনেক ভালোবাসি। আমি কাউকে ই ফোন করিনি। বাজার থেকে মাংস আনতে

যা’চ্ছি তুমি খাবার রেডি ক’রতে থাকো তারপর একসাথে বসে খাবো কেমন।আমা’র পা’গলী একটা। উ’ম্মাহ্