শোয়ার সময় মাত্র ১ কোয়া রসুন বালিশের নিচে রেখে ঘুমান, ৭ দিনের মধ্যেই দেখবেন ম্যাজিক

আমা’দের মধ্যে অনেকেই ব্যা-পক পরিমাণে সুস্বাদু রান্না করতে পারে । এবং এই সুস্বাদু রান্নার অন্যতম মূ-ল হা-তি-য়ার হলো রসুন । যেকোনো রান্নাতে রসুন দিলে করলে তার স্বাদ অত্যন্ত বেড়ে যায়। একথা সত্য এবং অ-স্বী-কার করার কোনো উপায় নেই ।

কিন্তু শুধুমাত্র যে রান্নার ক্ষেত্রে রসুন ব্যবহৃত হয় এমনটা কিন্তু নয় । এর পাশাপাশি আরও বিস্তর কার্যকারিতা রয়েছে রসুনের। আমা’দের মধ্যে অনেকেই হয়ত সেগু’;লি জানেন আবার অনেকেই জানেননা যারা জানেননা তাদের জন্য এই প্রতিবেদন।

রসুন হা-র্ট অ্যা-টাক থে-কে মানুষকে সুরক্ষিত রাখে কো-ষ্ঠ-কা-ঠিন্য গ্যা-স অ-ম্বল থেকে ও রসুনের জু-ড়ি মে-লা ভার যদি একথা আমি নই বরং বলছে বেশ কিছু গবেষক।

যারা প্রতিনিয়ত রসুন খেয়ে থাকেন তারা হয়তো ভালো রকম ভাবে টের পাবেন আমা’র এই বক্তব্যের সাথে। তবে শুধুমাত্র যে রসুন খেলে কাজ দেবে এমনটা কিন্তু নয় । তার পাশাপাশি রসুনের সংস্পর্শে থাকলেও কাজ হবে এমনই চা-ঞ্চ-ল্য-কর ত-থ্য উঠে আসে সম্প্রতি।

সম্প্রতি একদল গবেষক জানাচ্ছে যে রাত্রে বালিশের নিচে যদি রসুনের কোয়া রাখা হয় তাহলে তার গু’ণ অ’পরিসীম । যার ফলে আপনার ঘু’ম হবে গভীর । দূ-র হ-য়ে যাব’ে হ-তাশা ।

নেতিবাচক মানসিকতা থেকে মিলবে মুক্তি । হা-র্ট অ্যা-টাক গ্যা-স অ-ম্বল পি-ত্ত থেকে রেহাই পাওয়া যাব’ে রসুনের সংস্পর্শে থাকলে । এমনই এক চা-ঞ্চ-ল্য-কর তথ্য সম্প্রতি দা-বি করেছে বেশ কিছু গবেষকরা।

-গবেষকদের মতে, রসুন প্রাকৃতিক অ্যা-ন্টি-বায়োটিক হিসেবে কাজ করে। রোজ সকালে খালি পেটে যদি এক কোয়া কাঁচা রসুন খাওয়া যায়, তবে তা শক্তিশালী অ্যা-ন্টি-বায়োটিক হিসেবে কাজ করে।

এছাড়াও উ-চ্চ র-ক্ত-চা-প নিয়ন্ত্রণে, লি-ভার, পি-ত্ত-থ-লি ও পাকস্থলীকে সুস্থ সবল রাখতে এবং হজম-শ-ক্তি বাড়াতে রসুনের ভূমিকা অনস্বীকার্য। ডা-য়া-বি-টিস, হ-তাশা ও বিভিন্ন ধরনের ক্যা-ন্সার প্র-তি-রোধেও রসুনের জুড়ি মেলা ভার।